Agnimitra_Alt_Bangla
- বিজ্ঞাপন -

এর আগেই বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বেলাগাম মন্তব্যকে কেন্দ্র করে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছিল। তখন বিশ্বভারতীর উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে একটি গণ ইমেইল কর্মসূচির আয়োজন করে ‘ঐক্য বাংলা’।

আরো পড়ুনঃ চিরবিদায় জানালেন প্রণব মুখার্জী – একমাত্র বাঙালি (প্রাক্তন) রাষ্ট্রপতি

- বিজ্ঞাপন -

এবারও বিজেপি নেত্রী তথা বিজেপি মহিলা মোর্চার সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পালের, “পৌষ মেলার মাঠে ‘sex racket’ ও বিভিন্ন অসামাজিক কার্যকলাপ চলে” মন্তব্যকে কেন্দ্র করে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। আপামর বাঙালি সমাজ তাঁর মন্তব্যের নিন্দা করেছেন। এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে অগ্নিমিত্রা পালের মন্তব্যের বিরুদ্ধে সামাজিক মাধ্যমে বহুমুখী অনলাইন কর্মসূচির আয়োজন করল বাংলার প্রথম মুক্তপন্থী বাঙালি জাতীয়তাবাদী সংগঠন ‘ঐক্য বাংলা’।

আরো পড়ুনঃ বাঙালি জাতির উদ্দেশ্যে নিকৃষ্টতর উক্তি বিজেপির সদস্য তথা ত্রিপুরা ও মেঘালয়ের প্রাক্তন রাজ্যপাল

ঠিক কি কি কর্মসূচির আয়োজন করল ‘ঐক্য বাংলা’ ?

ঐক্য বাংলা সংগঠনের প্রধান মুখ ও সাধারণ সম্পাদিকা শ্রীমতী সুলগ্না দাশগুপ্ত জানান, ” বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল পৌষ মেলার মাঠে বিভিন্ন অসামাজিক কার্যকলাপের বিষয়ে আলোকপাত করেছেন , একজন বাঙালি হিসেবে নিশ্চয়ই তাঁর কাছে উপযুক্ত তথ্যপ্রমাণ রয়েছে। তাই বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের কাছে আমরা গণ ইমেইল কর্মসূচির মাধ্যমে জানতে চাই আদৌ এই ঘটনার কোনো সত্যতা রয়েছে কি না কিন্তু কোনো সংবাদমাধ্যমই তাঁর অভিযোগ সম্পর্কে কোনো আলোকপাত করতে পারেননি। সুতরাং ধরেই নিতে হচ্ছে তাঁর অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। “

আরো পড়ুনঃ বাঙালি জাতীয়তাবাদ শুধু আবেগ নয়, বাঁচার লড়াই

এখানেই না থেমে সুলগ্না দেবী আরো যোগ করেন, “পৌষ মেলার মাঠ সম্পর্কে এই ধরনের অভিযোগ আনার পরেও যেহেতু উনি উনার সপক্ষে কোনো তথ্যপ্রমাণ পেশ করতে পারেননি, বাঙালির ঐতিহ্যবাহী বিশ্বভারতী সম্পর্কে এইধরনের মন্তব্য করার কারণে আমরা তাঁর মন্তব্যের বিষয়টি একটি গণ ইমেইল কর্মসূচির মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেছি।”

আরো পরুনঃ  Tamaira Fashion Designer Pure Cotton Saree Without Blouse Piece(1509)

আরো পড়ুনঃ মমতা ব্যানার্জী র পর কে হবেন বাংলার মুখ? কে কোন স্থানে অবস্থান করছেন?

তবে কি শুধুই গণ ইমেইল কর্মসূচিই আয়োজন করছে ঐক্য বাংলা ?

মাথা নেড়ে ঐক্য বাংলা সংগঠনের সহ সম্পাদক দেবায়ন সিংহ বলেন, “একেবারেই নয়। গণ ইমেইল কর্মসূচি একটি কার্যকর পদ্ধতি মাত্র। এছাড়াও অগ্নিমিত্রা পালের মন্তব্যের বিরুদ্ধে সামাজিক মাধ্যমে #BoycottAgnimitraPaul অনলাইন ক্যাম্পেইন করছি। এই অনলাইন ক্যাম্পেইনের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে তাঁর এই মন্তব্যের বিরুদ্ধে বাংলার ভূমিসন্তানরা যাতে সমবেতভাবে, সুশৃঙ্খল ও সুষ্ঠুভাবে প্রতিবাদ করতে পারে।”

আরো পড়ুনঃ ভারতীয় রাজনীতির আঙ্গিনায় ক্রিমিনাল দের অধিপত্য

কিন্তু এত কিছুর পরেও যদি অগ্নিমিত্রা পাল তাঁর মন্তব্যের জন্য ক্ষমা না চান তখন’ ঐক্য বাংলা’ কি পদক্ষেপ গ্রহণ করবে ?

মৃদু হেসে ঐক্য বাংলার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য অভিজিৎ গুহ নিয়োগী বলেন, ” আগে এই ধরনের মন্তব্য করেও রেহাই পাওয়া যেত। এখন অন্ততঃ প্রতিবাদ তো হচ্ছে , সেটাই বা কম কি ?”
কার্যতঃ একই সুরে ঐক্য বাংলা সংগঠনের অন্য একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ঐক্যযোদ্ধা সৌম্য চৌধুরী জানান,” প্রতিবাদ ও জনমত গঠন করা গুরুত্বপূর্ণ। বাংলার ভূমিসন্তানদের স্বতঃস্ফূর্ত প্রতিবাদকে সঠিক আকার দেওয়া আমাদের কর্তব্য।”

আরো পড়ুনঃ ব্ল্যাসফেমি না ইতিহাসের ক্ষত !!! ডক্টর বিধানচন্দ্র রায় দম্পর্কে বিতর্কিত বিরুদ্ধ প্রচার গুলি

অর্থাৎ বোঝাই যাচ্ছে অগ্নিমিত্রা পালের এই মন্তব্যের বিরুদ্ধে সামাজিক মাধ্যমে বিভিন্ন অভিনব অনলাইন কর্মসূচির মাধ্যমে জনমত গঠন করছে ‘ঐক্য বাংলা’। এখন দেখার এটাই যে মাত্র ছ’মাস বয়সী বাংলার প্রথম মুক্তপন্থী বাংলা জাতীয়তাবাদী সংগঠনটি তাঁদের কাঙ্খিত লক্ষ্য অর্জনে সফল হয় কি না।

ঐক্য বাংলা

- বিজ্ঞাপন -