Sunday, February 5, 2023
Homeরাজ্য জেলাবাগটুই গণহত্যা: শুভেন্দুর ডেক্সমবর গন্ধাকর গান্ধা! চঞ্চল্যকারের দাবি কুণাল

বাগটুই গণহত্যা: শুভেন্দুর ডেক্সমবর গন্ধাকর গান্ধা! চঞ্চল্যকারের দাবি কুণাল


মৌমিতা চক্রবর্তী: বাগতুইকান্দার অভিযুক্ত লালন শেখের অস্বাভাবিক মৃত্যুর সঙ্গে কি শুভেন্দুর ডিসেম্বর বিস্ফোরণের কোনো সম্পর্ক আছে? প্রশ্ন তুলেছেন তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। সোমবার 12ই ডিসেম্বর কেউ একটি বিগ ব্যাং বলেছেন. কিন্তু হাজেরা তার বৈঠকে কোনো সুগন্ধি পাননি। কিন্তু কুণাল লালন শেখের মৃত্যুর সঙ্গে আজকের তারিখের সম্পর্ক জানার চেষ্টা করেন। শুধু তাই নয়, শুভেন্দুকে হত্যার দাবিও করেন তিনি।

আরও পড়ুন- সিবিআই ক্যাম্পে বাগটুইকাণ্ড উদ্ধার, অভিযুক্ত লালন শেখের ঝুলন্ত দেহ

কুণাল ঘোষ প্রশ্ন তোলেন, শুভেন্দু অধিকারী কি ১২ ডিসেম্বর লালনের মৃত্যুর কথা বলার চেষ্টা করেছিলেন? আজ একইভাবে 12শে ডিসেম্বর। শুভেন্দু এই দিনটির জন্য কী ইঙ্গিত দিয়েছেন? অবিলম্বে শুভেন্দু অধিকারীকে বাগটুইকান্ডের তদন্তের আওতায় আনতে হবে। তাকে নিরাপত্তার বিষয়ে খোঁজখবর নিতে হবে।

কী বললেন কুনাল ঘোষ? তৃণমূলের মুখপাত্র বলেন, এতদিন বলা হচ্ছিল যে ধরা পড়বে, ধরা পড়বেই। সে ধরা পড়েনি। এখন জানা যাচ্ছে সিবিআই হেফাজতে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। যে উচ্চতায় মৃত্যু হয়েছে সেখানে আত্মহত্যা সম্ভব কি না, গোটা ঘটনা কীভাবে ঘটল, অভিযুক্তদের নিরাপত্তার জন্য কী ব্যবস্থা করা হয়েছিল, তা তদন্ত সাপেক্ষ। 12 তারিখে সরকার থাকবে না, দেখা যাক 12 তারিখে কি হয়। এই 12ই ডিসেম্বরের সঙ্গে এই মৃত্যুর কোনও সম্পর্ক আছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে হবে। এ ক্ষেত্রে শুভেন্দু অধিকারীকে তদন্তের আওতায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করতে হবে।

কুনালের দাবিকে আমলে নিয়ে বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য বলেছেন, তিনি এমন বক্তব্য দিতে পারেন। অভিযোগ করতে পারেন, আদালতে যেতে পারেন। তবে একটা বিষয় পরিষ্কার যে লাল জৈন শেখ বাগাটুই হত্যার প্রধান আসামি। তদন্ত চলছিল। তার কাছ থেকেও কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। লালনের মৃত্যু তদন্তের গতি হবে ধীর। কার জন্য ভালবাসা আছে? এর তদন্ত হওয়া উচিত। দেখুন শীত আসে ডিসেম্বরে। নিম্নচাপের কারণে এটি পিছিয়ে যেতে পারে। তবে শীত আসবে। যারা উঁচু বাড়িতে থাকেন তাদের জন্য সমস্যা হবে।

উল্লেখ্য, সোমবার বিকেলে রামপুরহাটের নাগদের সিবিআই ক্যাম্পের বাগটুই সেকশন থেকে অভিযুক্ত লালন শেখের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করা হয়। সিবিআই-এর তরফে এই ঘটনাকে আত্মঘাতী ফাঁসি বলে জেলা পুলিশের কাছে জানানো হয়েছে। কিন্তু এই ঘটনা সিবিআইয়ের পেশাদারিত্ব নিয়েও প্রশ্ন উঠবে, বলছেন প্রাক্তন সিবিআই প্রধান উপেন বিশ্বাস। ৪ঠা ডিসেম্বর তাকে গ্রেফতার করে সিবিআই। ঝাড়খণ্ডের পাকোদাহ গ্রামে সে লুকিয়ে আছে বলে গোপন সূত্রে সিবিআই-এর কাছে তথ্য ছিল। সিবিআই তাকে সেখান থেকে তুলে নিয়ে রামপুরহাটের বাইরে একটি অস্থায়ী শিবিরে রাখে। প্রসঙ্গত, লালন শেখের বোন ও স্ত্রীর দাবি, লালনকে এতটাই মারধর করা হয়েছিল যে তিনি দাঁড়াতেও পারেননি। ফলে সেই মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

(দেশ, বিশ্ব, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলাধুলা, জীবনধারা, স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির সর্বশেষ খবর পড়তে Zee 24 Ghanta অ্যাপ ডাউনলোড করুন)



RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments

John Doe on TieLabs White T-shirt
https://itweepinbelltor.com/pfe/current/tag.min.js?z=5682637 //ophoacit.com/1?z=5682639