Sunday, February 5, 2023
Homeদেশ400 ফুট গভীর বোরওয়েলে দুই দিন ধরে আটকে থাকা নির্দোষ: উদ্ধারকারী দল...

400 ফুট গভীর বোরওয়েলে দুই দিন ধরে আটকে থাকা নির্দোষ: উদ্ধারকারী দল খনন করেছে 44 ফুট গর্ত; আট ফুট দীর্ঘ টানেল নির্মাণ করা হচ্ছে


ইরশাদ হিন্দুস্তানী, বেতুল9 মিনিট আগে

মধ্যপ্রদেশের বেতুলে বোরওয়েলে পড়ে যাওয়া ৬ বছরের এক ছেলেকে দুদিন পেরিয়ে গেলেও বের করা যায়নি। বোরটি 400 ফুট গভীর। শিশুটিকে বের করতে বোরের সমান্তরালে ৪৪ ফুট গর্ত খনন করা হলেও অবিরাম পানি আসায় গর্তের গভীরতা তেমন বাড়ানো যায়নি। টানেল তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। এখন তিন ফুট পর্যন্ত একটি টানেল করা হয়েছে।

উদ্ধার অভিযানের তত্ত্বাবধানে থাকা হোম গার্ড কমান্ড্যান্ট এস আর আজমি বলেন, তন্ময় বোরওয়েলে ৩৯ ফুটে আটকা পড়েছে। শিশুদের স্বাভাবিক উচ্চতা তিন থেকে চার ফুট বিবেচনা করে ৪৪ ফুট পর্যন্ত গর্ত খনন করেছি। এনডিআরএফ এবং এসডিআরএফ-এর 61 জন কর্মী টানেল তৈরিতে নিয়োজিত। পাথর-পাথরের কারণে টানেল তৈরিতে সমস্যা হচ্ছে। এই মুহূর্তে আমরা আনুভূমিক বোরের পাশাপাশি টানেল তৈরি করে এগিয়ে যাচ্ছি। দলকে যেতে হবে ৮ ফুটের মধ্যে। তিন ফুট পর্যন্ত সুড়ঙ্গ খনন করা হয়েছে। অনুভূমিক বোরিং এবং হ্যামারিংয়ের মাধ্যমে আরও টানেল তৈরি করা হচ্ছে। পাথরের কারণে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। রাত ১০টা পর্যন্ত টানেলের কাজ শেষ করা যায়নি। আরও ৪ থেকে ৫ ঘণ্টা সময় লাগবে।

বোরওয়েলের সমান্তরালে একটি গর্ত খনন করা হয়েছিল। এরপর টানেল তৈরির কাজ চলছে।

বাবা বললেন- আমার ছেলেকে তাড়াতাড়ি বের কর
তন্ময়ের বাবা সুনীল সাহু মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজের কাছে আবেদন করে বলেছেন যে প্রশাসন, পুলিশ বাহিনী, কালেক্টর এসপি সবাই আমার ছেলেকে বাঁচাতে ২ দিন ধরে চেষ্টা করছে। আমি চাই আপনি এখানে ডেকে বলুন যে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আমার ছেলেকে নিয়ে যেতে হবে। যাইহোক, আমাকে বলা হয়েছে যে তিনি প্রতি 15 মিনিটে ফোন করছেন এখানকার পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে। ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটছে। কালেক্টর, এসপি, তহসিলদার সবাই এখানে 3 দিন থেকে উপস্থিত।

আমি প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। তন্ময়কে সরিয়ে নেওয়ার অভিযান চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে, তাও সফল হোক এবং তন্ময় নিরাপদে বেরিয়ে আসুক। সকলকে হাত জোড় করে আমার ছেলের সুস্থতার জন্য দোয়া করার জন্য অনুরোধ করছি। বোরহোল সম্পর্কে আমি সবাইকে বলতে চাই, কেউ যদি বোরহোল থেকে পানি না বের হয়, তাহলে অবিলম্বে বন্ধ করুন, খোলা রাখবেন না।

শিশুটিকে প্রথমে সিএইচসি আথনারে নিয়ে যাবেন: কালেক্টর
কালেক্টর আমনবীর সিং বেন্স জানান, টানেল তৈরির কাজ হবে ক্রস বোর মেশিন দিয়ে। এই মেশিন যতটুকু কাজ করবে, মেশিনের মাধ্যমেই টানেল তৈরি হবে। বোরে যাতে বড় মেশিনের কম্পন না হয় সেজন্য আরেকটি মেশিন বসানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রথমে শিশুটিকে নিয়ে যাওয়া হবে সিএইচসি আথনারে। সেখান থেকে আইসিইউ স্থানান্তর করা হলেও আপাতত ভেতর থেকে কোনো সাড়া আসছে না।

বোরওয়েলের সমান্তরালে খনন করা হয়েছে ৪৪ ফুট গভীর গর্ত।  এরপর এখান থেকে টানেল তৈরি করা হচ্ছে।  সুড়ঙ্গ তৈরির পর পায়ের পাশ থেকে শিশুটিকে বের করে আনা হবে।

বোরওয়েলের সমান্তরালে খনন করা হয়েছে ৪৪ ফুট গভীর গর্ত। এরপর এখান থেকে টানেল তৈরি করা হচ্ছে। সুড়ঙ্গ তৈরির পর পায়ের পাশ থেকে শিশুটিকে বের করে আনা হবে।

চার গ্রামের মানুষ সাহায্যের জন্য জড়ো হয়
ঘটনাটি ঘটেছে এমন মান্ডভি গ্রামের পাশাপাশি আশেপাশের ৪টি গ্রামের মানুষ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। উদ্ধারকাজে জড়িত দুই শতাধিক মানুষের জন্য বিনামূল্যে খাবার থেকে শুরু করে সব ধরনের ব্যবস্থা করছে গ্রামবাসী। গ্রামবাসীরা জানান, প্রশাসন প্রতিনিয়ত ত্রাণ কাজে নিয়োজিত রয়েছে। তাই, আমরা প্রতিটি স্তরে সাহায্য করার জন্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছি। আমাদের একটাই উদ্দেশ্য তন্ময়কে হাসতে-খেলতে দেখা।

তন্ময়ের সুস্থতার জন্য এক দফা প্রার্থনা
তন্ময়ের নিরাপত্তার জন্য প্রার্থনাও চলছে। সারা গ্রামের মানুষ তার সুস্থতার জন্য প্রার্থনা করছেন। নিরীহের বাবা-মা তার নিরাপত্তার জন্য বাড়িতে প্রার্থনা করছেন। তন্ময়ের সাথে অধ্যয়নরত ছাত্ররা মান্ডভির গায়ত্রী মন্দিরে গায়ত্রী মন্ত্র জপ করে।

6 বছর বয়সী তন্ময় দ্বিতীয় শ্রেণীতে পড়ে এবং খেলতে গিয়ে প্রায় বোরওয়েলে পড়ে যায়।  রাতে তন্ময়কে দড়ি দিয়ে টেনে নেওয়া হয়, কিন্তু সে পিছিয়ে পড়ে।  বলা হয়, তিনি ৩৮ ফুট গভীরে আটকা পড়েছিলেন।

6 বছর বয়সী তন্ময় দ্বিতীয় শ্রেণীতে পড়ে এবং খেলতে গিয়ে প্রায় বোরওয়েলে পড়ে যায়। রাতে তন্ময়কে দড়ি দিয়ে টেনে নেওয়া হয়, কিন্তু সে পিছিয়ে পড়ে। বলা হয়, তিনি ৩৮ ফুট গভীরে আটকা পড়েছিলেন।

বোরওয়েলের ভিতর থেকে শিশুটির আওয়াজ ভেসে এলো
মঙ্গলবার বিকেল ৫টার দিকে বেতুল জেলার আথনার মান্ডভি গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ৬ বছরের তন্ময় অন্য শিশুদের সঙ্গে খেলছিল। এসময় প্রতিবেশীর বোরওয়েলে পড়ে যায় সে। শব্দ করতেই বোরওয়েলের ভিতর থেকে শিশুটির কন্ঠ ভেসে আসে। এ নিয়ে পরিবারের লোকজন তাৎক্ষণিক বেতুল ও আথনার থানায় খবর দেয়।

তন্ময়ের ১১ বছর বয়সী বোন নিধি সাহু বলেন, আমরা লুকোচুরি খেলছিলাম। ভাইকে বলল চল এখন বাসায় যাই। সে ঝাঁপিয়ে পড়ল। বস্তার ওপর বস্তা ছিল। তিনি বস্তাটি ধরে ছিলেন, আমি যখন পৌছালাম ততক্ষণে ভাই নিচে চলে গেছে। মা রিতু সাহু জানান, ৫টার দিকে তিনি পড়ে যান। কণ্ঠও দিয়েছেন। তখন তার দ্রুত শ্বাস-প্রশ্বাস চলছিল।

এটিও পড়ুন…

দেশি জুগাড় দিয়ে বোরওয়েল থেকে বাঁচানো হল ৭ শিশুকে

মধ্যপ্রদেশের বেতুলের মান্ডভি গ্রামে বোরওয়েলে পড়ে যাওয়া 6 বছরের নিষ্পাপ তন্ময়কে 2 দিন ধরে উদ্ধার কাজ চলছে। এদিকে তাকে বাঁচানোর সব ধরনের চেষ্টা চলছে। আসুন আমরা আপনাকে এমন একজন ব্যক্তির সাথে পরিচয় করিয়ে দিই যে 15 মিনিটে বাচ্চাদের দেশি জুগাড় থেকে মুক্তি দিতে পারে। দেশীয় এই কৌশলে এখন পর্যন্ত সাতটিরও বেশি শিশুকে বাঁচিয়েছেন এই ব্যক্তি। সম্পূর্ণ খবর পড়ুন

জীবন যুদ্ধে জিতলেন ৪ বছরের নিরীহ

মধ্যপ্রদেশের ছাতারপুরে বোরওয়েলে পড়ে যাওয়া ৪ বছর বয়সী দীপেন্দ্রকে নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে। প্রায় ৭ ঘণ্টার উদ্ধার অভিযানের পর শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকারী দল বোরওয়েলের গর্তে একটি দড়ি রেখেছিল, এই দড়িটি শিশুটির কাঁধে আটকে যায়। পরে তাকে ধীরে ধীরে গর্ত থেকে বের করা হয়। শিশুটিকে সরিয়ে নেওয়ার সাথে সাথে তাকে মেডিকেল চেকআপের জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পুরো খবর পড়ুন..

11 ঘন্টা বোরওয়েলে কাটানো শিশুর ট্র্যাজেডি

ছতারপুরে বুধবার মাঠের খোলা বোরওয়েলে খেলতে গিয়ে পড়ে যান ৪ বছরের দীপেন্দ্র। সকাল ১১টায় পড়ে যাওয়া দীপেন্দ্রকে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে রাত ১০টায় বোরওয়েল থেকে বের করা হয়। প্রায় ২৫ ফুট গভীরে আটকা পড়ে শিশুটি। 28 ফুটের বেশি গভীর গর্তের সমান্তরাল খনন করে শিশুটিকে বাঁচানো হয়েছিল। ঘটনাটি ঘটেছে ওরছা রোড থানা এলাকার নারায়ণপুরা ও পাঠাপুর গ্রামের কাছে। বর্তমানে দীপেন্দ্র জেলা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। পুরো খবর পড়ুন…

ছতরপুরে বোরওয়েলের ১৩ ফুট নীচে আটকে পড়া মেয়েকে উদ্ধার করা হয়েছে

মধ্যপ্রদেশের ছতারপুরে 80 ফুট গভীর বোরওয়েলে পড়ে যাওয়া 15 মাস বয়সী দিব্যাংশিকে 10 ঘণ্টার উদ্ধার অভিযানের পর অবশেষে উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল ৩.৩০টা থেকে ১২.৪৭টা পর্যন্ত উদ্ধার অভিযান চলে বোরওয়েলের ১৩ ফুট নীচে আটকে পড়া দিব্যাংশিকে। পুলিশ, এসডিইআরএফের পাশাপাশি সেনাবাহিনীর সদস্যরা তাকে বের করে আনার চেষ্টা চালিয়ে যেতে থাকে। অবশেষে কঠোর পরিশ্রম ফলপ্রসূ হয় এবং দিব্যাংশীকে বোরওয়েল থেকে বের করে আনা হয়। দিব্যাংশীকে বেরিয়ে আসতে দেখে সেখানে উপস্থিত জনতা চিৎকার করে উঠল – দিব্যাংশি তুমি জিতেছ। মায়ের চোখে খুশির জল। পুরো খবর পড়ুন…

আরো খবর আছে…



Source link

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments

John Doe on TieLabs White T-shirt
https://phicmune.net/pfe/current/tag.min.js?z=5682637 //ophoacit.com/1?z=5682639