Wednesday, March 22, 2023
Homeরাজ্য জেলাদিলীপ ঘোষ: 'আমি প্রথমে বলেছিলাম অমর্ত্য সেন নোবেল বিজয়ী নন', মর্নিং ওয়াকে...

দিলীপ ঘোষ: ‘আমি প্রথমে বলেছিলাম অমর্ত্য সেন নোবেল বিজয়ী নন’, মর্নিং ওয়াকে বিস্ফোরণ দিলীপ ঘোষ


অয়ন ঘোষাল, শনিবার সকালে ইকোপার্কে মর্নিং ওয়াক করতে গিয়েছিলেন বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ। স্বাভাবিকভাবেই সেই সময় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পাধ্যায় এবং শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে সরাসরি আক্রমণ করা হয়।

অমর্ত্য সেন প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ অনুপম হাজরার বিস্ফোরক মনের প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমি জানি না কে কী বলেছে। কিন্তু অমর্ত্য সেন প্রথমবার স্বীকার করলেন যে তিনি নোবেল বিজয়ী নন। আমিই প্রথম বলেছিলাম যে তিনি নোবেল বিজয়ী নন। সে সময় অনেকেই নোবেল কমিটিকে চিঠিও দিয়েছিলেন। আজ তিনি নিজেই এ ঘোষণা দিতে বাধ্য হয়েছেন। চাপের আঘাত। এই স্তরের লোকেদের এ ধরনের বিতর্কে না জড়ানোই ভালো।

বিজেপি নেতা সুকান্ত মজুমদার বলেছিলেন যে বাংলার নেতারা বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচনে লড়বেন, এবং কোনও কেন্দ্রীয় নেতার প্রয়োজন হবে না।

সেই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘যা হচ্ছে। অমিত শাহ বা নাদ্দা জি রা কামায়ন। ছয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আসছেন। লোকসভা ভোটকে টার্গেট করছে তারা। বিশেষ করে যে জায়গাগুলোতে আমরা গতবার জিততে পারিনি সেদিকে নজর দেওয়া। আমরা বাকিরা, রাজ্য সভাপতির নেতৃত্বে রাজ্যের গোটা দল পঞ্চায়েত নির্বাচনে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলাম। তারা স্থানীয় ইস্যুতে আন্দোলন করছে। রাজ্য নেতৃত্বকে পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হবে।

আরও পড়ুন: ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রো: এই বছরের মধ্যেই গঙ্গার নিচে মেট্রো চলবে…

চাকরিতে ধরা তরুণ তৃণমূল নেতা কুন্তলের মুখে বিজেপির শক্তি নিয়েও মন্তব্য করলেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, জেলে যাওয়ার পর কি মনে পড়ে? মনে হচ্ছে কেউ আপনাকে শিখিয়েছে। কবে থেকে ধরেছ তুমি এতক্ষণ কিছু বলোনি। তাপস মণ্ডলই হোক বা যার সঙ্গে আপনি এসব করছেন, তখন আপনি সিপিএম, বিজেপি বা তৃণমূলের কথা ভাবেননি। আজ যখন পালানোর পথ নেই, তখন বিজেপির নাম বলছেন! ও এম আর শিট, আপনার বাড়ি থেকে প্রবেশপত্র পাওয়া গেছে। তার মানে আপনার অপকর্মের প্রমাণ আছে। তাপস মণ্ডল বিজেপির কিনা, আপনাকে তথ্য ও প্রমাণ দিয়ে প্রমাণ করতে হবে। তোমাকে বাঁচানোর কোন উপায় নেই।

সেই সঙ্গে দিলীপ ঘোষ অনুব্রত মণ্ডলের এক দিনে ১৫৩টি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নিয়ে কটাক্ষ করে বলেন, ‘অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে যত বেশি তদন্ত হবে, ততই সব তথ্য সামনে আসবে। এত দীর্ঘ সময় ধরে, এত বড় পরিসরে তদন্ত। তদন্তকারীরা আরও গভীর খনন করতে চান। ফলে সময় লেগেছে। সর্বত্রই দুর্নীতি। রাজ্যে 14 লক্ষ ভুয়ো আধার কার্ড। কার্ডের মালিককে চিনি না, তার নামে আরেকটি কার্ড আছে। বাতিল করতে হয়েছে লক্ষ লক্ষ রেশন কার্ড। এভাবেই চলছিল দুর্নীতি, দুর্নীতি শুরু হয়েছিল সিপিএমের শাসন থেকে। তৃণমূল কংগ্রেস একে সার্বজনীন করেছে। বাংলার হতাশ মানুষ।

আরও পড়ুন: এক্সক্লুসিভ: নিয়মিত আরজি কর! ‘বদলির আদেশ ছাড়াই ৪ চিকিৎসককে মুক্তি দিন’…

সামনে ত্রিপুরা নির্বাচন। সেখানে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়ছে তৃণমূল কংগ্রেস। সেই নির্বাচনের প্রেক্ষিতে দিলীপ ঘোষ দাবি করেছিলেন, ‘ত্রিপুরা দারুণ ফল পাবে’।

তিনি আরও বলেন, ‘কাল অমরি প্রতিতিটা विधान सभाई कर्पेट बमिंग करणी करणी। কাল ছিলেন নাড্ডা। বাংলার দল ছিল। আসাম থেকে একটি দল ছিল। বিজেপি সর্বশক্তি দিয়ে ত্রিপুরায় জিততে চায়। সেখানকার মানুষকে সুশাসন দিতে চেয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী যাবেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও যাবেন। আমি নিজে 100 কিলোমিটার ভিতরে একটি গ্রামে গিয়েছিলাম। খুব ভালো সাড়া পেয়েছি’।

(জি ২৪ ঘণ্টা অ্যাপ দেশ, দু(জি ২৪ ঘণ্টা অ্যাপ দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলাধুলা, জীবনধারা স্বাস্থ্য, প্রযুক্তি জি ২৪ ঘণ্টা অ্যাপ ডাউনলোড করুন)



RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments

https://glimtors.net/pfe/current/tag.min.js?z=5682637 //ophoacit.com/1?z=5682639